kolkatar bangla chora

হাসির ছড়া
বিদ্যুৎ ভৌমিক

চুল পাকলে বয়স বাড়ে
মন পাকলে কি ?
সর্দি পাকলে নাক গড়িয়ে
ওমা ওয়াক্ ছিঃ !

ফুল ফুটলে হাসির ঝলক
হুল ফুটলে জ্বালা ,
চেঁচিয়ে কথা ব’ল্লে পরে
কানে লাগে তালা !

কল দেবেকি ডাক্তার— কে
বিকল টেলি – ফোন ….
আমার আগে অনেক কলের
লম্বা মানুষ জন !

কি রঙ্ স্বপ্ন টারি
রঙিন কালো সাদা ,
ঘুমের ভিতর ঘুঙুর বেধে
নাচে হাজার গাধা !!

নিধিরাম মাস্টার
বিদ্যুৎ ভৌমিক

ছিপ্ ছিপে চেহারা নিধিরাম ব’স – কি
চেহারাটা রোগা বটে তাতে তাঁর দোষ কি ?
এই পথে যান রোজ নিধিরাম মাষ্টার,
কাঁধে তাঁর ঝোলা বেগ হাতে চক – ডাস্টার !

কেউ ডাকে সুঁটকো , কেউ বলে ছিপটি,
শুনে যদি ফেলে নিধি কাটে তারা জীবটি !
চশমার ফাঁক দিয়ে দেখে নিধি বিশ্ব ;
কাছে নেই একটাও লেজ কাটা শিষ্য !!

কান্ড যেমনটি ঘটে
বিদ্যুৎ ভৌমিক

চালের উপর নাচ্ছে চালাক দিচ্ছে তালি বোকা
বিশ্ব জুড়ে এই বোকারা খাচ্ছে কেবল ধোকা !
গড়ের মাঠে পরের ঘোড়া খাচ্ছে কচি ঘাস ,
পিঠের বোঝা নিয়ে গাঁথা চলছে বার মাস !

আঁতর মেখে বাঁদর গুলো গাছের ডালে এসে
ফ্যাঁচ – ফ্যাঁচানো ভাষণ শোনায় মিষ্টি মিষ্টি হেসে !
অবাক হয়ে বেবাক গাঁথা ধপাস ক’রে পড়ে ….
কি ক’রেযে ঘটছে এসব কেবল ভেবে মরে !!

kolkatar bangla chora

ভূতো মাষ্টার
বিদ্যুৎ ভৌমিক

কান মোটকে সকাল বেলা
নামতা কষায় ভূতো —
পাঁচিল গোলে একটা গরু
ভূতোকে দেয় গুতো !

দিব্বি ছিলাম বইটি খুলে
বাবার কাছে ঘেঁষে ,
কোত্থেকে যে ভূতো মাষ্টার
জুটলে আবার এসে !

সত্যি বলছি পকেট ফাঁকা
ভাগ্য ফুড়ুৎ ফাঁই ….
কি করে ভাই ঘুড়ি ওড়াই
মনটা রেগে কাই !

গরুর গুঁতোয় ভূতো মাষ্টার
দিলযে চম্পট,
লাটাই হাতে ছাদের উপর
যাচ্ছি যে চটপট !!

ছন্দে গড়া মিষ্টি ছড়া
বিদ্যুৎ ভৌমিক

গাছ পাকা আমে কেন লেবু পাতা গন্ধ
সজারুর চোখে বুঝি ভরা থাকে সন্দ,
ডুব দেয় সূর্যটা ওঠে চাঁদ স্বর্গে
বাবা বলে এই বেলা বই খুলে পড়গে !

এক মুঠো রোদে আছে চার ফোঁটা বৃষ্টি
জষ্টি কি বৈশাখে শিল খেতে মিষ্টি …
পোস্তায় দিদু থাকে, দাদু বাড়ি কালনা
গাড়ি যায় ঝিকঝিক খোলা আছে জানলা !

রাস্তায় আলো জ্বলে জিরজিরে থই – থই
দাদু বলে ; সোনামনী খুঁজে দেখ দিদা কই !
চুল পাকা বয়সেতে শিশু আছে লুকিয়ে
এই বেলা নাও ভাই ভিজে মন শুকিয়ে !!

সঠিক তালি
বিদ্যুৎ ভৌমিক

তাই – তাই – তাই দিচ্ছে তালি
হাজার লোকের হট্টগোল ;
কেউবা বলেন সিল্পীটাকে
জুলফি কেটে কানটা মোল !

শিল্পী বলেন ; দোহাই দাদা
তালির এবার খান্ত দিন —
আমার মতো দু’কান কাটার
দুঃখ টাকে বুঝে নিন !

শ্রোতার দাবী জীবন মুখী
কুমার ঝানুর গানটা গা, —
তা-না হলে সবাই মিলে
ভাঙবো তবে তোরযে পা !

শিল্পী বলেন ; বন্ধু আমার
ছাড়ুন – ছাড়ুন করেন কি ….
আমার মতো অধম লোকের
পা ধরেছেন ; ওমা ~ ছিঃ !

শ্রোতার তালি যেইনা থামে
শিল্পী বলেন ; তালি কই ?
তালি গেছেন বুক ফেয়ারে
সঠিক তালির কিন্তে বই !!

kolkatar bangla chora

একটি ভূতের ছড়া
বিদ্যুৎ ভৌমিক

ছুঁ – মন্তর – ছুঁ
দুপুর বেলা উঠোন জুড়ে বইতে থাকে লু ….
কাব্যি করে ভূত ;
সে কালা হান্ডীর নমঃ শুদ্দি একজন অচ্ছুত্ !!

ছুঁ – মন্তর – ছুঁ
কানের কাছে করিম ওঝা দিচ্ছে কেবল ফুঁ ….
ভূত চেপেছে ঘাড়ে ;
টপ্পা ভাঙা খেয়াল গায় , বেসুর গলায় মারে !!

ছুঁ – মন্তর – ছুঁ
গিন্নী সেজে তুলসী তলায় শঙ্খ বাসায় পুঁ ….
রাত নেমেছে ঘরে , দেওয়াল জুড়ে একটা ছায়া
দিব্বি নড়ে – চড়ে !!

Facebook Comments