abrar fahad sorone kobita kintu keno

রক্ত মাংসের মানুষ বলেই চুপ থাকা গেল না বিবেকের তীব্র তিরস্কারে,দেশটা যেন মগের মুল্লুক হয়ে গেছে পান থেকে চুন খসলেই খুন, গুম, হত্যা, জীবন্ত ঝলসে দেয়া, ধর্ষণ, পুঁতে ফেলা, লাঞ্ছিত করা এক কথায় যা ইচ্ছে তাই! কিন্তু কেন?
লক্ষ প্রাণের আত্মাহুতি শুধু ভূ-খন্ডের স্বাধীনতার জন্য তো নয়! আমার দেশ, আমার মানচিত্র, আমার অধিকারে আমি হাসবো, বলবো,চলবো উড়িয়ে দিবো আমার নিজস্বতার ঘুড়ি আমার ভাবনার আকাশে! ঘুড়ি উড়তে না উড়তেই হ্যাঁচকা টানে নামানোর পাঁয়তারা আজ যেন বীরত্বে পরিনত হয়েছে–কিন্তু কেন?

যত্র তথ্য ক্ষুন্ন হচ্ছে মৌলিক চাওয়া,লুন্ঠিত হচ্ছে আদর্শ নামকা ওয়াস্তে প্রশাসন পকেটে হাত গুজে অপেক্ষমান শেষ দৃশ্যের, দাম্ভিকতার বেহায়াপনায় একটা পাপ ঢাকতে আর একটা নতুন পাপের নাটকীয় জন্ম নিত্য ব্যাপার হয়ে গেছে ভন্ড আর ভন্ডামীর প্রতিযোগিতায়, সর্ষেক্ষেতে ভূত লুকিয়ে ভূত তাড়ানোর হাস্যকর অভিনয় দেখতে দেখতে ক্লান্ত আজ আমজনতার প্রত্যাশার দৃষ্টি– কিন্তু কেন?
সমজাতি পশুও একে অপরকে আঘাত করে না,অথচ ঠুন্কো অজুহাতে মানুষ মারছে মানুষ সীমারের চেয়েও নির্মমতায় কেড়ে নিচ্ছে জীবন, কিসের দৌরাত্ম্যে? কোন্ এমন অজানা শক্তিতে মূহুর্তে চন্ডালের হিন্স্রতায় নিভিয়ে দিচ্ছে জীবন প্রদীপ, লজ্জা হয়, ঘৃণা হয় অস্তিত্বের শেকড় খুঁজতে– কিন্তু কেন?
লাল সবুজের সম্ভ্রম নিলামে উঠছে বহিঃবিশ্বের দুয়ারে উপহাসের উপজীব্য হয়ে কিছু হায়েনা শকুনের লোলুপতায়, একটা উপকারের বিনিময়ে যুগের পর যুগ বলী হচ্ছে, দেউলিয়া হচ্ছে আমাদের
নিজস্বতা–কিন্তু কেন?
চার রঙের দৌরাত্ম্যে আর ইচ্ছে করে না মাথা নুয়াতে, এতো বেশি নমনম আজ জ্বালার উদ্রেক হয়েগেছে, তোষামোদের জোয়ারে আমরা ভুলে যাই আমাদের আমিত্বকে, ওপারের চাপরাশি আসলেও মাথায় তুলে নাচি আমরা আমাদের ভালোবাসায়, আমাদের মমতায়,আর বিনিময়ে বুক ঝাঁঝরা করা গুলি, কাঁটা তারে ঝুলিয়ে নির্মম মৃত্যুর অপমান–কিন্তু কেন?

abrar fahad sorone kobita kintu keno

আর আজ তাদের জন্যই আমরা মারছি আমাদের ভাই, আমাদের বোন সর্বোপরি আমরা নিজেরাই মারছি নিজেদের, ভুলে যাচ্ছি আমাদের ভ্রাতৃত্বের ঐতিহ্য, আমাদের শিক্ষা, আমাদের আত্মার বন্ধন, যে বন্ধনের শক্তিতে মুক্ত করেছি এই দেশ এই মাটি আর আজ এই দেশের স্বার্থই লুন্ঠিত করছি বিবেকের বাতি
নিভিয়ে – কিন্তু কেন?
জাগ্রত হোক ঘুমন্ত বিবেক আর দেখতে চাই না একটিও অপমৃত্যু, লাশের বোঝা আর বোইতে পারছিনা, কষ্ট গুলো ফেঁপে ফুলে উঠছে প্রসব বেদনার তীব্রতায়, আন্দোলনের হাতছানি দিচ্ছে গুমরে কাদা অধিকার গুলো,কে বা কারা পৃথিবীর মানচিত্র থেকে মুছে দিতে চায় লাল সবুজের বীরত্ব, সৌন্দর্য, শক্তি!সব উত্তর আজ জনমনে তেল জলের মতোই স্বচ্ছ ! তাই আর কোনো প্রশ্ন করতে চাই না কর্ণহীন সুশীল সমাজের কাছে –কিন্তু কেন? কিন্তু কেন? কিন্তু কেন?????

Facebook Comments